জল্লাদদের প্রচার বন্ধ করেন: ঢামেকে প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ বিভাগ, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ :
সূত্র: দৈনিক কালের কন্ঠ অনলাইন;
PM
বিএনপিকে জল্লাদ উল্লেখ করে দলটির সংবাদ প্রচার বন্ধ করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে দগ্ধদের দেখতে গিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি এ কথা বলেন। একই সঙ্গে সংলাপের প্রসঙ্গটিও নাকচ করে দেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা জল্লাদদের নিউজ কাভারেজ দেওয়া বন্ধ করুন, দেখবেন তারা সহিংসতা কমিয়ে দিয়েছে। তিনি বলেছেন, জামায়াত-বিএনপি এরা জঙ্গি। এদের থামাতে সরকার যতটা কঠোর হওয়া প্রয়োজন ততটাই কঠোর হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যারা সংলাপের কথা বলে তারা আগে সন্ত্রাস বন্ধ করার উদ্যোগ নেবেন এটাই প্রত্যাশা করবো।তিনি বলেন, জামায়াত-বিএনপি জঙ্গি দল। আপনারা কেন তাদের নিউজ প্রচার করেন। তাদের নিউজ প্রচার না করলে কি টেলিভিশন চলবে না? আমি বেসরকারি টেলিভিশনের অনুমোদন দিয়েছি। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার আগে বার্ন ইউনিট পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় হতাহত ৬৩ জনের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেত্রীকে মানুষ হত্যা করার লাইসেন্স কেউ দেয়নি। দুই বছরের শিশুর ওপরও বোমা হামলা হয়েছে। দগ্ধ হয়ে এখন হাসপাতালে কাতরাচ্ছে। আর তিনি গুলশানে আরাম আয়েশে থেকে মানুষ পোড়ানোর হুকুম দিয়ে যাচ্ছেন। এটা সরকার কোনোভাবেই মেনে নেবে না। জঙ্গিবাদের শাস্তি যেভাবে হয় আমরা তার সেভাবেই শাস্তির ব্যবস্থা করবো।দেশব্যাপী বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধ-হরতালের নামে চলমান সহিংসতা ও পেট্রোলবোমায় দগ্ধদের দেখতে বুধবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) বার্ন ইউনিটে যান প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি আহত প্রত্যেককে ১০ লাখ টাকা করে অনুদান তুলে দেন। পারিবারিক সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে এই অনুদান দেওয়া হয়। ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে অবরোধ সমর্থকদের আগুনে দগ্ধ হয়ে ৫৩ জন সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।এর আগে চিকিৎসা শেষে ঘরে ফিরে গেছেন ৬৩ জন। অনুদান হস্তান্তর ও বার্ন ইউনিটে দগ্ধদের পরিদর্শন শেষে সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া যা করছেন তা রাজনীতি নয়, জঙ্গিবাদ।

খুনিদের সঙ্গে কিসের সংলাপ: প্রধানমন্ত্রী

সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম;

PM 2

 

Print Friendly, PDF & Email

Add Comment