প্রেস বিজ্ঞপ্তি


পার্বত্য চুক্তির ১৮বছর পূর্তি উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের মতবিনিময় সভা

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

 

BKetu

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, শতভাগ চুক্তি বাস্তবায়নে চাই সকল পক্ষের শান্তি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ আলোচনা। পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত মানুষের কল্যাণের কথা চিন্তা করে বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ চুক্তি করেছেন এবং তিনিই এ চুক্তি পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করবেন।

 

তিনি বলেন, চুক্তির অংশ হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ ও পার্বত্য জেলা পরিষদ গঠিত হয়েছে এবং বিভিন্ন বিভাগ পরিষদে হস্তান্তরিত হয়েছে প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য। তাই এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন ও চুক্তি বাস্তবায়নে সবাইকে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করতে হবে।

 

গতকাল ২ ডিসেম্বর ২০১৫ বুধবার সকালে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে পরিষদের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ১৮বছর পূর্তি উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান একথা বলেন।

 

মতবিনিময় সভায় পরিষদের সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরী, ত্রিদীপ কান্তি দাশ, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেন, কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক রমনী কান্তি চাকমা, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা: সাখাওয়াত হোসেন বক্তব্য রাখেন।

 

RHDC

অনুষ্ঠানে পরিষদের সদস্যবৃন্দ, নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, নির্বাহী প্রকৌশলী পরাক্রম চাকমাসহ হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

সভায় পরিষদের সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরী বলেন, পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করতে হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আওয়ামী লীগ যত শক্তিশালী হবে চুক্তি তত তাড়াতাড়ি বাস্তবায়িত হবে। তিনি বলেন, চুক্তির আগে এবং চুক্তির পরে পার্বত্য এলাকার পরিস্থিতি কি ছিল তা জনগণই বলবে। তিনি হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, পার্বত্য এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আমাদের চুক্তিবান্ধব কাজ করতে হবে। গতানুগতিকভাবে নয় দৃষ্টান্তমূলক কাজের মাধ্যমে জনগণকে বুঝাতে হবে পাহাড়ে যেসব উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে তা এই শান্তিচুক্তিরই ফসল।

 

তারিখ : ০২/১২/২০১৫ইং

অরুনেন্দু ত্রিপুরা
জনসংযোগ কর্মকর্তা
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ
ছবি ও রিপোর্ট: লিটন শীল

Print Friendly, PDF & Email

Add Comment