নির্বাচন বর্জনের হুমকী


রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

 

NC

 

আসছে ৪ জুন ৬ষ্ঠ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীদের প্রতি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকী ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের প্রতিবাদে আজ শুক্রবার ১৩ মে সকাল ১১টায় জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সভাপতি মাহবুবুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয় ৩য় ধাপে রাঙ্গামাটি জেলার ইউপি নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের প্রদত্ত প্রাণনাশের হুমকী ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের প্রতিবাদে ২৪ মার্চ রাঙ্গামাটির সচেতন পার্বত্য জনগণ কর্তৃক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়। নির্বাচনের পূর্বে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী জানিয়ে নির্বাচন কমিশনে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন নির্বাচন পিছিয়ে ৬ষ্ঠ ধাপে করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়।

৬ষ্ঠ ধাপে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মনোনয়ন পত্র দাখিলের পরপরই আবার তাদের প্রতি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হুমকী শুরু হয়। এতে প্রার্থীরা তাদের এলাকা ছেড়ে রাঙ্গামাটি শহরে অবস্থান করতে বাধ্য হয়েছেন। এ অবস্থায় নির্বাচন করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয় বলে তারা জানাচ্ছেন।

বিগত সংসদ নির্বাচন-সহ প্রত্যেকটি নির্বাচনে প্রার্থী ও ভোটারদের হুমকী ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জালভোটসহ ভোটকেন্দ্র দখল করে নির্বাচনে জয় পেয়েছিল তারা। এভাবে তারা বেশ কিছু দূরবর্তী কেন্দ্রে জোরপূর্বক প্রায় শতভাগ ভোট আদায় করেছিল তাদের প্রার্থীর অনুকূলে।

এ অবস্থা বিদ্যমান থাকলে আগামী ৪ জুনের নির্বাচন বর্জন করা ছাড়া বিকল্প কোন পথ থাকবে না বলে লিখিত বক্তব্যে মত ব্যক্ত করা হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে মাহবুবুর রহমান বলেন নির্বাচন পেছানো হলেও আমাদের দাবী অনুসারে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে কোন তৎপরতা আজো পরিলক্ষিত হয়নি। কোন সন্ত্রাসীও আটক হয়নি।

পরিস্থিতির দৃশ্যমান কোন অগ্রগতি না হলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রাক্তন প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার রাঙ্গামাটিতে আসার পর জরুরী সভার মাধ্যমে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ জানান।

সম্মেলনে প্রাণ নাশের হুমকীর শিকার বেশ কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীও উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Add Comment